Monday, June 17, 2024

নামমাত্র খাটুনি, এই ব্যবসার হাল একবার ধরতে পারলে চিরতরে চাকরি করার ইচ্ছাই মরে যাবে

বর্তমানে আপনার চারপাশে এমন একটি ব্যবসার আইডিয়া ঘোরাফেরা করছে যেটা আপনি দেখেও দেখছেন না বা বুঝতে পারছেন না। আগে যেমন এই ব্যবসার চাহিদা ছিল,বর্তমানে এই ব্যবসার চাহিদা দ্বিগুণ বা বলতে গেলে তিনগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। সেই সঙ্গে এই ব্যবসার বিভিন্ন ধারাও এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে। বাজারে একদমই প্রতিযোগিতা থাকবে না এবং খুবই কম টাকা থেকে শুরু করা যাবে- এমন একটি ছোট ব্যবসার আইডিয়া সম্পর্কে যদি আপনি জানতে চান,তাহলে আজকের এই ছোট ব্যবসার আইডিয়া আপনার জন্য।।

 

ছোট ব্যবসা হিসাবে ফুলের ব্যবসা:

আজকের এই স্মল বিজনেস আইডিয়া হল ফুলের ব্যবসার। এখন ফুলের ব্যবসা বলতে শুধুমাত্র ফুলের কেনাবেচাকে বোঝায় না। ফুলের ব্যবসা বলতে বিভিন্ন ধরনের ব্যবসাকে বোঝায়। যেমন ফুলের মালা কেনা-বেচা, রংবেরঙের ফুল দিয়ে ফুলের তোড়া বানিয়ে বিক্রি করা, ডেকোরেশনের ফুল সাপ্লাই ইত্যাদির ব্যবসাকে বোঝায়। ফুলের ব্যবসা যেকোনো ধরনের হতে পারে, কিন্তু সব ধরনের ব্যবসাতেই প্রচুর পরিমাণে লাভ রয়েছে। সবচাইতে বড় কথা হলো, ফুলের ব্যবসা শুরু করার জন্য খুব বেশি পুজিঁরও প্রয়োজন হয় না। খুব স্বল্প পুঁজিতেই আপনি এই ব্যবসা শুরু করতে পারেন এবং অল্প দিনের মধ্যেই প্রচুর টাকা রোজগার করতে পারবেন।

 

ফুলের ব্যবসা থেকে কেমন লাভ হতে পারে? 

অন্যান্য ব্যবসার তুলনায় ফুলের ব্যবসায় লাভ অনেক গুণ বেশি থাকে। যদি আপনি হাজার টাকা দিয়ে ফুল কিনে আনেন, তাহলে আপনি সেই ফুলের মালা বানিয়ে বা ফুলের তোরা বানিয়ে অনায়াসেই ২,৫০০ টাকা থেকে ৩,০০০ টাকা বিক্রি করতে পারেন।  ফুলের মালা এবং ফুলের তোড়া ছাড়াও আপনি পাইকারি দামে ফুল কিনে এনে, মিডলম্যান হিসেবে যারা বিভিন্ন অনুষ্ঠান ডেকোরেট করে, সেই সমস্ত ডেকোরেটরদের কাছেও ফুল বিক্রি করতে পারেন। এইভাবে আপনি মিডলম্যান হিসেবে ফুলের ব্যবসা করেও প্রচুর টাকা রোজগার করতে পারেন। এখন যদি ধরেও নেওয়া হয় যে, আপনার দৈনিক ৫০০ টাকা করে রোজবার হবে, তাহলেও আপনি মাসে ১৫০০০ টাকা রোজগার করতে পারেন। তাই যদি আপনি ফুলের ব্যবসা করতে চান তাহলে আপনি কোনো মন্দিরের সামনে দোকান লাগিয়ে বা কোনো দোকান ভাড়া নিয়ে ফুলের তোড়া ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

আপনার জন্য
WhatsApp Logo