Monday, May 27, 2024

সোনার চেয়েও দামি! দেশের পাশাপাশি বিদেশেও রয়েছে চাহিদা, এ গাছ লাগালে মাসে আয় কোটি টাকা

এই পৃথিবীতে ৩ ভাগ জল আর ১ ভাগ স্থল। আর এই ১ ভাগ স্থলের বেশিরভাগই দখলে আবার প্রকৃতির। আর এই প্রকৃতির মধ্যেই এমন এমন সব গাছপালা রয়েছে যেগুলো সোনার চেয়েও বহু মূল্যবান। আজ তেমনি একটি গাছের কথা বলবো আপনাদের যেই গাছ আপনি যদি আপনার বাড়িতে লাগান তাহলে সেখান থেকে মাসে কয়েক লক্ষ টাকা আপনি উপার্জন করতে পারবেন। কারণ গাছটির দেশের পাশাপাশি বিদেশের মাটিতেও রয়েছে প্রচুর পরিমাণে চাহিদা। চলুন যেনে নেয়া যাক সেই গাছটির সমন্ধে বিস্তারিত।

বহু মূল্যবান সেই গাছটির নাম হচ্ছে, পপলার ট্রি (Poplar Tree)। এই গাছের প্রচুর পরিমাণে চাহিদা রয়েছে পুরো বিশ্বব্যাপী। কারণ এই গাছের কাঠ দিয়ে ভিন্ন জিনিসপত্র তৈরি করা হয়। পপলার গাছের কাঠ হালকা হওয়ার কারণে এই গাছের কাঠ দিয়ে প্লাইউড, দরজা, বোর্ড, ম্যাচস্টিক, ক্রিকেট ব্যাট, উইকেট, ক্যারামবোর্ড, বল এছাড়াও বাণিজ্যিক এবং বহু ঘরোয়া আসবাবপত্র ও স্থাপনার উপকরণ হিসেবে ব্যাবহার করা হয় এই গাছ। পাশাপাশি বিদেশেও এই গাছের তৈরি কাঠের চাহিদা থাকায় প্রচুর রপ্তানি করা হয়। তাই একজন সাধারণ মানুষ এই গাছের চাষ করে মাসে কয়েক লক্ষ থেকে কয়েক কোটি টাকা পর্যন্ত উপার্জন করতে পারবেন খুব সহজেই। চলুন জেনে নিই কিভাবে চাষাবাদ হয় এই পপলার গাছের।

Poplar Tree

পপলার গাছ রোপনের জন্য ১৮ থেকে ২০ ডিগ্রি তাপমাত্রা সবচেয়ে ভালো। একই সঙ্গে, সর্বনিম্ন ১০ ডিগ্রি এবং সর্বোচ্চ ৪৫ ডিগ্রি তাপমাত্রা পপলার গাছের বৃদ্ধির জন্য সর্বোত্তম। রিপোর্ট (Report) অনুযায়ী, জমিতে ৫.৫ মিটার দূরত্ব অনুযায়ী পপলার গাছের চারা লাগাতে হয় এবং এতে ফলন খুব ভালো হয় এই গাছের। একজন কৃষক জমিতে পপলার গাছ লাগিয়ে ১ কোটি ২০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত উপার্জন করতে পারেন। তবে পপলার গাছের চাষে যেমন প্রচুর লাভ রয়েছে তেমন এই গাছের চাষ করতে খরচও রয়েছে প্রচুর।

আপনার জন্য
WhatsApp Logo